সামাজিক সচেতনতা, সাম্প্রতিক

যে ৮টি কারণে আজই পর্নগ্রাফি দেখা বন্ধ করবেন

আজকাল যেন পর্নগ্রাফি খুব কমন হয়ে গেছে। বয়ঃসন্ধিকালে পা পড়তে না পড়তেই জেঁকে ধরছে পর্নগ্রাফির আসক্তি।

এটাকে খুবই স্বাভাবিক হিসেবে ধরে নেওয়া আধুনিক আমরা বুঝতেই পারছি না পর্নগ্রাফি কীভাবে আস্তে আস্তে আমাদের শারীরিক ও মানসিকভাবে ক্ষতি করে চলেছে।

পর্নগ্রাফির ৮টি ক্ষতিকারক দিক

১। বিশেষজ্ঞদের মতে অতিরিক্ত পর্ণ দেখলে যৌনক্ষমতা হ্রাস পেতে থাকে। এছাড়া একই সঙ্গীর সাথে যৌনসঙ্গমের ইচ্ছা কমে যেতে থাকে এবং ডিভোর্স বা পরকীয়া ইত্যাদির ঝুঁকি থাকে।

২। পর্ন দেখে এমন প্রতি ৫ জনের মধ্যে ১ জন যৌনাকাঙ্ক্ষার কাছে পরাজিত হয়। তারা সঠিকভাবে চিন্তা বা সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে পারে না।

৩। পর্ন দেখার সময় অনেকেই হস্তমৈথুনে লিপ্ত হয়। অতিরিক্ত হস্তমৈথুন শরীরে বিরূপ প্রভাব ফেলে এবং যৌন ক্ষমতা কমে যেতে থাকে।

৪। যারা পর্ন দেখে তারা সঠিক যৌনসঙ্গমের প্রতি আগ্রহ হারিয়ে ফেলে। যৌনসঙ্গম থেকে তারা আরও অনেক অনেক বেশি কিছু চায়।

৫। পর্নগ্রাফিতে যা দেখানো হয় তার বেশির ভাগই বাস্তব হয় না। ফলে আপনার চাহিদা বা আসক্তির সংজ্ঞা প্রাকৃতিক নিয়মের থেকে ভিন্ন হয়ে যেতে থাকে।

৬। যৌনসঙ্গমের পূর্বে শারীরিক আলিঙ্গন বা ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ করার প্রয়োজন হয়। কিন্তু অতিরিক্ত পর্ন দেখার কারণে আপনার মন চাইবে সরাসরি যৌনসঙ্গমে লিপ্ত হতে যার ফলে আপনার মধ্যে কখনোই যৌন তৃপ্তি আসবে না।

৭। পর্নগ্রাফি দেখতে দেখতে আপনার যৌনাকাঙ্ক্ষা বৃদ্ধি পাবে কিন্তু যৌন ক্ষমতা কমতে থাকবে। ফলে সঠিক উপায়ে যৌনসঙ্গম করার প্রতি আপনার কোনো চিন্তাই থাকবে না। শুধু নিজের কথাই ভাববেন, সঙ্গীর কথা একবারও মনে পড়বে না।

৮। পর্ন দেখার কারণে কিছু মানুষের মানসিক বিকৃতি এমন পর্যায়ে পৌঁছায় যে তারা কোনো মহিলা বা পুরুষকে সুদৃষ্টিতে দেখতে পারে না। যার ফলে বিভিন্ন অপকর্মের সৃষ্টিও হতে পারে।

 

স্বাস্থ্য সম্পর্কিত যে কোনো সমস্যা, রোগ নির্ণয় এবং ডায়েট প্লান তৈরি করতে ডাউনলোড করুন Rx71 Health App

আপনাদের সুবিধার্থে লিংক দেওয়া হলো http://bit.ly/2aStSKw

 

Comments

comments

পূর্ববর্তী পোস্ট পরবর্তী পোস্ট

আপনি হয়ত এগুলো পছন্দ করতে পারেন