BL
সামাজিক সচেতনতা, সাম্প্রতিক

ডিম কোনটি খাচ্ছেন? আসল না নকল!

শিরোনামটি দেখে কেউ প্রশ্ন করতেই পারেন “ডিমের আবার নকল কি?” কিন্তু কল্পনার মত মনে হলেও ব্যাপারটি সত্য। সম্প্রতি বাজারে এমন ডিম বের হয়েছে যা আসল ডিম নয়।

ভাবছেন মিথ্যে কথা? নকল ডিম বানিয়ে কার কী বা লাভ হবে? লাভ আছে। পর্যাপ্ত ডিম গ্রাহকের কাছে কম দামে পৌঁছে দিতে পারছে তারা আর সাথে সাথেই সিংহভাগ লাভ করছে।

কৃত্রিম ডিম প্রস্তুত করতে ক্যালসিয়াম কার্বনেট, স্টার্চ, রেসিন ও জিলেটিন নামক রাসায়নিক পদার্থ ব্যবহার করা হয় যা মানবদেহের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর। ভয় পেয়ে গেলেন? ভয় পাবেন না। এই সকল নকল ডিম চেনার উপায় আছে। চলুন জেনে নিই সে সব উপায়-

নকল ডিম চেনার উপায়

  • নকল ডিম সাধারণ ডিমের তুলনায় বেশি ভঙ্গুর হয়ে থাকে। ফলে এতে সামান্য চাপ প্রয়োগ করলেই এটি ভেঙ্গে যায়।
  • এটি সিদ্ধ করলে কুসুমের রঙ পরিবর্তন হয়ে যায়।
  • এই ডিমের খোলস সাধারণ ডিমের থেকে একটু উজ্জ্বল হয় এবং একটু বেশি খসখসে হয়ে থাকে।
  • এসকল ডিম ঝাকি দিলে হালকা শব্দ শোনা যায়।
  • ডিম ভাঙ্গার পর কুসুমটি সাদা অংশের সাথে মিশে যাবে। আসল ডিমের কুশুম সাদা অংশের সাথে মিশে যায় না।
  • আসল ডিমের গন্ধ কাঁচা মাংসের মত হয়। নকল ডিমে এরকম কোন গন্ধ পাওয়া যায় না।

Comments

comments

পূর্ববর্তী পোস্ট পরবর্তী পোস্ট

আপনি হয়ত এগুলো পছন্দ করতে পারেন